প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কার্যক্রম

কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে ১৯৯০ সালে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক পিকেএসএফ প্রতিষ্ঠার পর হতে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি দেশের ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রতিষ্ঠানটি ব্যাপক কর্মসূচি পরিচালনা করে আসছে। মানুষকে কেন্দ্র করে মানব উন্নয়ন এবং মানুষের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যেই পিকেএসএফ তার সহযোগী সংস্থার মাধ্যমে সকল উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। এ প্রেক্ষিতে, পিকেএসএফ ২০০৬ সাল থেকে দারিদ্র্য দূরীকরণের বহুমাত্রিক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে “প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচী” নামে নতুন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। এ ধারাবাহিকতায় ২০১৮-২০১৯ অর্থবছর থেকে পিকেএসএফ ১১৬ টি সংস্থার মাধ্যমে ৬৪ টি জেলায় ২৩৪ টি ইউনিয়নে উক্ত কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে। আদ্-দ্বীন ওয়েলফেয়ার সেন্টার পিকেএসএফ এর অন্যতম সহযোগী সংস্থা হিসেবে প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে নারকেলবাড়িয়া এবং কাদিরপাড়া শাখার অধীনে ২ টি ইউনিয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রবীণ জনগোষ্ঠীর মানবিক ও আর্থিক উন্নয়ন এবং মানব মর্যাদা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টিসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান এবং দারিদ্র্য দূরীকরণের বহুমাত্রিক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে জাতীয় প্রবীণ নীতিমালা ২০১৩ এর সাথে সঙ্গতি রেখে পিকেএসএফ কর্তৃক প্রণীত প্রবীণ নীতিমালার যথাযথ, সফল এং টেকসই বাস্তবায়নের মাধ্যমে সকল স্তরের প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন এই কর্মসূচির অন্যতম উদ্দেশ্য।

প্রবীণ কর্মসূচীর পরিশিষ্টসমুহ

বাংলাদেশের সংবিধানে দেশের সকল সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণীকে সহায়তা প্রদানের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। সংবিধানের ১৫ নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী অন্ন, বস্ত্র, আশ্রয়, শিক্ষা ও চিকিৎসা সহ জীবন ধারণের মৌলিক উপকরণের ব্যবস্থা; কর্মের অধিকার অর্থাৎ কর্মের গুন ও পরিমাণ বিবেচনা করে মুজুরির বিনিময়ে কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা বিধান করা; যুক্তিসঙ্গত বিশ্রাম, বিনোদন ও অবকাশের অধিকার এবং সামাজিক নিরাপত্তার অধিকার সংরক্ষণ করা। সে অনুযায়ী প্রবীণদের মর্যাদাপূর্ণ, দারিদ্র্যমুক্ত, সুস্বাস্থ্য ও নিরাপদ সামাজিক জীবন নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে অসচ্ছল প্রবীণদের জন্য “প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় নিম্নোক্ত পরিষেবাসমুহ প্রদান করা হচ্ছে।

  • প্রবীণদের জন্য সামাজিক কেন্দ্র স্থাপন।
  • প্রবীণদের জন্য পরিপোষক-ভাতা, বিশেষ সঞ্চয় ও পেনশন স্কিম চালু করা।
  • প্রবীনদের জন্য ‘শ্রেষ্ঠ প্রবীণসম্মাননা’ এবং প্রবীণদের সেবা প্রদানকারী সন্তানদের ‘শ্রেষ্ঠ সন্তান সম্মাননা’ প্রদান।
  • অতিদরিদ্র প্রবীণদের জন্য বিশেষ ঋণ সুবিধা ও প্রশিক্ষণ প্রদান।
  • প্রবীণ স্বাস্থ্য সেবা এবং ফিজিওথেরাপি এইড প্রদান।
  • প্রবীণদের জন্য বিশেষ সহায়তা প্রদান।
  • প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে বিভিন্ন সংস্থা ও স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে পারষ্পারিক সহযোগিতা বৃদ্ধি।

২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে আদ্-দ্বীনের অর্জন

ক্রমিক পরিষেবার ধরণ সংখ্যা টাকা
০১ প্রবীণ সামাজিক কেন্দ্র স্থাপন ৬,৭৬,৪০০
০২ প্রবীণ নেতৃবৃন্দের ওরিয়েন্টেশন ৮৪,০০০
০৩ ক্ষুদ্রঋণ স্টাফদের প্রশিক্ষণ ৬,০০০
০৪ বয়স্ক ভাতা/পরিপোষক ভাতা ৫২৫ ৫,৮৫,০০০
০৫ প্রবীণ সম্মাননা মেডেল ও সার্টিফিকেট ১২ ২২,২০০
০৬ শ্রেষ্ঠ সন্তান সম্মাননা ১২,৬০০
০৭ এককালীন আর্থিক সুবিধা ১৫,০০০
০৮ মৃতের সৎকার ৩৮ ৭৬,০০০
০৯ স্বাস্থ্য সেবা ব্যয় ১৯,৮০০
১০ বিশেষ সহায়তা কম্বল প্রদান ৫০ ২,২৫,০০০
১১ ছাতা প্রদান ২০ ৬,৬০০
১২ লাঠি (ওয়াকিং স্টিক) ২০ ৭,০০০
১৩ চাদর প্রদান ৫০ ২২,৫০০
১৪ চেয়ার কমোড ২০ ১৪,০০০
১৫ হুইল চেয়ার ১২,০০০

Login

Notice Board

1. Office Circular